মনের মানুষকে কীভাবে ভুলে যাওয়া যায়?

 

কীভাবে তাকে ভুলে যাওয়া যায়

তারে ভোলানো গেল না কিছুতে…ভালবাসার মানুষকে কেন কোনও কিছুকেই তো আমরা স্বেচ্ছায় ভুলতে পারি না। ভুলতে যাওয়া মানেই হচ্ছে মনে করার উন্নত প্রয়াশ।

আর যা ভুলে যাওয়ার তা এমনিতেই ভুলে যাই। যেমন চেষ্টা করেও মনে করতে পারলাম না একটু আগেই বিছানা ছাড়ার সময় কোন পা আগে নামিয়েছিলাম 😉

দেখবেন কয়েক বছর আগের ঘটনা মনে নেই, আবার ছোটবেলার ঘটনাও মনে রয়েগেছে।

ভুলে যাওয়া, মনের ছবি

  • উপরের ছবিটা একটু দেখুন, ওটা মনের ছবি। বিশ্ববিখ্যাত মনস্তাত্ত্বিক সিগমুন্ড ফ্রয়েড ওই ছবি আঁকেন। ওই ছবি থেকেই অনেককিছু বিষয় পরিস্কার হবে।
  • আসলে মন থেকে কিছুই ডিলিট হয় না। সব মনের গভীরে অচেতন মনে জমা থেকে যায়। কেউ মনে করালে অনেক ছোটবেলার ঝাপসা স্মৃতিও মনে পড়ে।
  • প্রিয় মানুষের স্মৃতি সবসময় সচেতন মনে থাকে। কারণ প্রিয় মানুষ আমাদের পুরো মন জুড়েই রাজত্ব করে দীর্ঘদিন, তাই সম্পর্ক না থাকলেও প্রিয়কে ভোলা যায় না।
  • যখন ধীরে ধীরে সময় গড়িয়ে যায়। স্মৃতিতে ধূলো জমে। কিংবা ভালবাসার আসনে আরও একজন মানুষ বসেন, তখন আগেরজন মন থেকে ধূসর হতে থাকে। তখন সেই ভালবাসার মানুষ সচেতন থেকে অবচেতন মনে যায়, কিন্তু মাথায়/মনে জোর আঘাত না লাগলে প্রিয় মানুষ কোনওদিনেই অচেতন মনে যায় না।

ভুলে যাওয়া যায় না কিছুতেই

তাই ভালবাসার মানুষকে ভোলার চেষ্টা না করে নিজের স্বাভাবিক জীবন শুরু করা উচিৎ। তাতেই মন ধীরে ধীরে পথ পরিবর্তন করবে।

আমি ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা থেকে বলছি যখন নতুন ভাবে কেউ আবার ভালবাসে, এবং মনের ভেতরে এই বোধ জন্মায়, এ ছেড়ে যাব না। এ ঠকাব না। এ আজীবন সঙ্গে থাকবে, তখন ২য় জনের প্রভাব মনের ভেতর ১ম জনের প্রভাব নষ্ট করে।

তাই যখন কাউকে মনেরাখা বা ভুলে যাওয়া আমাদের হাতে নেই, পুরোটাই মনের খেলা তখন ভোলার চেষ্টা করাই উচিৎ না। তাতে আরও বেশি মনে পড়বে।

আর ভুলবেনই বা কেন, হতে পারে আজ সে সঙ্গে নেই। হতে পারে আজ সে মিথ্যা মায়া। কিন্তু তার সঙ্গে কাটানো সময়গুলো তো মিথ্যেছিল না। সেগুলো মনে থাক না। মন সেই দিনগুলো থেকে জীবনে নতুন ভাবে বাঁচার শিক্ষা নেবে।

ভুলে যাওয়া

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo

Bengali shayari Bangla SMS

Bengali shayari– মন মাতিয়ে দেওয়া প্রচুর Bangla shayari এখানে পাবেন। এই Bengali shayari গুলো আপনার ভালবাসার মানুষটিকে আরও কাছে এনে দেবে।

Bengali shayari Bangla sms

Bangla শায়ারি

Bengali shayari on love, Bangla sms, Download nice shayari apps

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

কত বসন্ত আসে কত বসন্ত চলে যায়

কিছুপ্রেমের কলি হৃদয়ে শোভা পায়

কিছুনীরব অভিমানে

ঝরে যায়

Bengali shayari, bangla shayari photo,
Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

মনের ভেতর আজ হাঁটতে হাঁটতে একা

হঠাৎ মনের এক গলির পথে

তোমার সঙ্গে দেখা

New Bangla dukher Kobita

আজ তোর মনে পড়ে, সেই সাইকেল ঠেলে ঠেলে গলির ভেতর দিয়ে যাওয়া? মনে পড়ে, লাজুক চোখে বারবার মুখোমুখি চাওয়া? আমার মনে পড়ে, খুব মনে পড়ে। সেই পার্কের বিকেল, নদীতে পা ডুবিয়ে বসে থাকা। আনমনে ঘাস চিবিয়ে যাওয়া। একসঙ্গে বাঁচার স্বপ্ন দেখা, সব মনে পড়ে আমার। তোর হাসি, তোর কান্না, তোর রাগ তোর অভিমান, সব মনে আছে আমার। শুধু বদলে গেছে সময়। বদলেছে সম্পর্ক। একদিন আমারা আমাদের ছিলাম। আজ আমরা এক্কেবারে অচেনা। বুকের ভেতর যে অতীত কাঁদে! আজ সেটুকুও কাউকে বলতে মানা। সত্যিই কত চেনা তবুও কত অচেনা।

Bangla sms

আমার চোখের সব কান্না

তোমার দেওয়া উপহার

তোর ওই ঠোঁটের হাসি

আজও বাঁচার ঠিকানা আমার…

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

Latest Bengali sad shayari

প্রেম পলাশের পদাবলী একলা গভীর রাতে হাতের জ্বলন্ত সিগারেট পুড়িয়েছে তোর পুরানো প্রেমিক বন্ধু গল্প পুড়েছি নিজে আরও বেশি । কতোরাত ভেজা বালিশে ঘুম চুরি গেছে । মাতালের মতো লাল চোখে সূর্যের কচি আলোতেও জ্বালা ধরে । সকাল সাতটায় বসি ক্লাসে ছাত্রের চোখে আলো জ্বালাতে । গোপনে চোখের কোন হতে সন্ধ্যা নামে স্কুলের মাঠে ।আমি বসেই থাকি । বাড়ির কাজ সেরে অন্ধকার আসে পাশে বসে, আঁচল পেতে । মায়ের মতো সেই ছেলে বেলা থেকেই আমাদের আলাপ । ওদিকে তোর অসুস্থ শরীর কতো বন্ধু বান্ধবী তবু সেবা করার কেও নাই !!! তাই বিস্কুট হাতে তোর পুরানো প্রেমিক বন্ধু । তোর ঠোঁটের থেকে লালা ঝরে । পৃথিবীতে তখন মধ্য রাত্রি ।সবাই ঘুমিয়ে । আমার শরীর সিগারেটে গলে গড়িয়ে যায় কাক ভোরের নরম অন্ধকারে। আজীবন তোরা দুজন জেগে থাকিস দরজা দেওয়া ঘরে । পৃথিবীতে তখনো মধ্য রাত্রি

Bengali sad shayari, Bengali shayari photo
Bengali sad shayari

অকারণ মনকেমন বারন

তবুও মনকেমন করে কেন

জানে না মন

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo
Bengali shayari photos, Bangla sms

আমার হৃদয় ভেঙেছিল

আমারই একটা ভুলে

নিজের অজান্তে আমি হৃদয় দিয়েছিলাম

তোমার হাতে তুলে।

Bengali shayari photo
Bengali love quotes

ভালবাসা আমি শীতের বাতাসে

ঝরে পড়া পাতা

ভালবাসা আজ আমি তোর

হারিয়ে ফেলা কবিতার খাতা

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

আমি বোকাছিলাম বলে ঠকিনি

আমি তোকে বিশ্বাস করেছিলাম বলেই ঠকেছিলাম

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

অবিশ্বাসের বিষে

আজ সব পুড়ে ছাই

তুই বল ভালবাসা

আজ তোকে কিভাবে বাঁচাই

bengali quotes on love

Bengali shayari photo
bengali quotes on love

Top Bengali sad poem Sindur churi

সিঁদুর চুরি অর্থের অভাবে আর মাধ্যমিক পেরনো গেল না পেটের টানে ট্রেনে চেপে মুম্বাই । তুই ভাবলি প্রতারক ।তুই ভাবলি ঠক । তুই কাঁদলি । ভুল বানানে হলেও তোকে লিখলাম চিঠি, পরিপাটি কোরে। উত্তর এলনা, আবার লিখলাম, আবার । আবার । তাও অধরা রইল উত্তর । দাঁতে দাঁত চেপে মনকে বললাম শরীর খারাপ আজ আর খাবনা থাক। মাঝে মাঝেই এমন হল তাতে কিছু টাকা জমল পকেটে, তাই দিয়ে একটা সিঁদুর কৌটা আর একটা শাড়ি কিনলাম ।

ভাবলাম দায়িত্ববান স্বামী, আবার চিঠি দিলাম, তুই হয়ত ভাবলি পাগলামি, তাই উত্তর এলনা। তোর গায়ের সাথে একটা অদ্ভুত মিল পেতাম শাড়িটায় ঘুমালাম কখনো বুকে কখনো মাথায় রেখে । পাশের বাড়ির বৌদি যখন তার দুমাসের ছেলেকে চুমু খেত ছাতে দাঁড়িয়ে । জানিস একটা অচেনা শিহরণ হত রক্তে ।

একদিন শুনলাম দাদা ভাইএর বিয়ে ফাল্গুনে, নানান বাহানায় ছুটি চাইলাম বারবার কিছুতেই কিছু উপাই হলনা আর, রাতে কাঁদলাম। এপাস ওপাশ করলাম শক্ত বিছানায় । বড় একা বড় অসহায় লাগলো নিজেকে । একদিন হুট কোরে শুনলাম ছুটি মঞ্জুর, টিবি হয়েছে কে বলে ভগবান নেই । দেরিতে হলেও ছুটিত এলো । ছুটলাম ট্রেন ধরতে। খুশিতে বার বার আলোর ঝিলিক বেরল মুখে । জানিনা কীভাবে আমার সহরে আমারে এনেদিল যান্ত্রিক বন্ধু ।

আমি ছুটলাম । বন, পুকুর পাড়, তাঁতিদের ডোবা পেরিয়ে আমি ছুটলাম, আমি ছুটলাম স্বাপ্নের ভেতরে, পকেটে সেই সিঁদুর কৌটা, হাতে হলুদ শাড়ি। আরও আরও জোরে আমি ছুটলাম । মুখের খুসি গড়িয়ে নামলো বুকে । মুখে হাত চেপে আমি ছুটলাম। ঐ ই ই ই তো আমাদের গ্রাম দুটো নদীর ওপারে । আরও আরও জোরে আমি ছুটলাম ।আরও ও ও জোরে । তার পর কিছু মনে নেই। যখন চোখ খুল্লাম, তোর হাতে পাখা, তোর হাতে শাঁখা সিঁথিতে সিঁদুর । হাতড়ে দেখতে চাইলাম পকেটের সিঁদুর কৌটা নাগাল পেলাম না, সেলাইনে টান পড়ল । পাস ফিরে দেখলাম হলুদ শাড়িটাও খুশির রঙে লাল হয়ে গেছে । কান্নাটা কাশির সাথে মিশে চেনা গেলনা । এতো ব্যথার জমানো আরব সাগরের নোনা জল চোখের কোনায় শুকিয়ে গেল ।আমি অপলক ভাবে চাইলাম ওই মুখে অজানা উত্তর প্রশ্ন আর প্রশ্নের ভেতর রয়েগেল । আজও অচেনা উত্তর বুকের ভেতর ঘুরপাক খায়, জানি সইবেনা তাও মনটা শুনতে চায় আমার লোকানো সিঁদুরের সন্ধান কতদিন আগে দাদাভাই পেল ।

Bengali shayari photo
Bengali shayari photo

Bengali shayari sad photo

অভিমানের আগুনে

আজ সবকিছু ছাই

এখন পথে ঘটে দেখা হলে

অচেনা হয়ে যাই

Read more

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo

bengali motivational quotes

Bengali motivational quotes:- অষ্টম শ্রেণিতে আমি যথেষ্ট দক্ষতার সঙ্গে ফেল করেছিলাম। কারণ আমি যা নম্বর পেয়েছিলাম তা শুনলেও আপনারা বিশ্বাস করবেন না। আর কোনওদিন জানতেও পারবেন না এত খারাপ রেজাল্ট করার জন্য কতটা কোঠোর সাধনা করতে হয়।

Bengali motivational quotes

তা সাধনায় সিদ্ধি লাভের পর, পিতার প্রহারে যখন আমার দিব্যচক্ষুর উদয় হল ততক্ষনে বন্ধুরা নবম শ্রেণিতে, আমি পুনরায়ঃ মুশিক ভবঃ।

যেদিকে তাকাই শুধু হাসাহাসি, কত পরামর্শদাতা। আমার ভবিষ্যৎ নিয়ে আমার পাশের পাড়াগুলোও তখন চিন্তায় রাত জাগছিল মনে হয়।

দুম করে বন্ধুরা কেমন যেন দাদা হয়ে গেল, আর ভাইগুলো বন্ধু হয়ে গেল।

আমি মোটামুটি এটুকু বুঝতে পেরেছিলাম, আমি মরলে অদ্ভুত হব। মানে যা অপরাধ করেছি তাতে ভূত হওয়ার যোগ্যতাও আর আমার নেই।

তখন আমাদের একটা মাটির কোঠা ঘরছিল, ওই ঘরটার কোঠায় বসে কাঁদতাম। পড়তাম। পড়লেও কিছুই বুঝতে পারতাম না, অঙ্ক মাথায় ঢুকতই না, ইংরেজি পড়তেই তো জানতাম না। শুধু ভাবতাম কী করব…

  • আমার ঠাকুমা বলেছিলেন, পড়লেই “ফাস্টো” হওয়া যায়। তুই পড়, বুঝে না বুঝে হলেও পড়।

  • আমার স্কুলের সংস্কৃত শিক্ষক (দূর্বাদল সিংহ মহাপাত্র) আমাকে পিছনের বেঞ্চ থেকে প্রথম বেঞ্চে তুলে আনলেন।
  • আমার এক কাকা (রানাপ্রতাপ মুখার্জী) দায়িত্ব নিলেন আমাকে টিউশন পড়ানোর।

শুরু হল গাধা পিটিয়ে ঘোড়া বানানোর লড়াই। সেই রাতজাগা রাতগুলো আর সবার উপহাসগুলো আমার সবচেয়ে বড় আশীর্বাদ।

পরের বছর সবাইকে নয় নিজেকে অবাক করে ফাস্ট হয়ে গেলাম। আহা কী আনন্দ আকাশে বাতাসে…. 🤔 ফেল থেকে ফাস্ট 🙄

আমার ফেল করার চেয়েও লোকে আরও বেশি অবাক হল আমার ফাস্ট হওয়ায়।

পরে সবাই মিলে প্রমাণ করল, বাবা পঞ্চায়েত প্রধান (বামফ্রন্ট) এই ফাস্ট হওয়া তাহলে….

★★★★★

আমি এখনো যখন নতুন কিছু করতে যাই সেদিনের সেই বাঁকা হাসিমুখগুলো মনে পড়ে… আমি কিছুতেই ক্লান্ত হই না আর। কাজ শেষ না হলে কিছুতেই ঘুম আসে না।

এখন আমার কয়েকটি ব্লগ ওয়েবসাইট আছে ১) প্রেমেরগল্প.কম ২)বাংলাব্লগার.ইন ৩)বাংলা-শায়রি.কম ৪) লটারিসংবাদ.টুডে আরও কয়েটি আছে সেগুলি গোপন থাকাই ভাল।

Best Bengali motivational quotes

তিনবছর কেন্দ্রিয় নবোদয় বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করার পর এখন একটি সরকারি কলেজে অধ্যাপনার কাজ করছি।

দেশবিদেশ মিলিয়ে প্রকাশিত বই সাতটি। আনন্দবাজার সহ সব পত্রপত্রিকায় লিখছি ১০ বছরের বেশি সময় ধরে….

জানি এগুলো তেমন কিছুই নয়, এই কোরায় আমার শ্রদ্ধেয় এবং প্রণম্য বহু মানুষ আছেন।

কিন্তু আজকে আমি এই যে জোনাকি হতে পেরেছি এটাও পারতাম না যদি না সেদিন ওরা তীর্যক হাসি হাসত।

আমার উপদেশ, নয় ভগবান পরশুরাম কর্ণকে এই উপদেশ দিয়েছিলেন

Bengali motivational quotes

মনের ভেতরের ক্রোধ, অশান্তি আর ঘৃণাকে শক্তিতে পরিনত করতে পারলে তুমি কোনওদিন পরাজিত হবে না।

আশাকরি এই Bengali motivational quotes আপনার একটু হলেও কাজে লাগবে।

হযরত মুহাম্মদ এর প্রিয় বাণী যা জন্নাত দেবে

হযরত মুহাম্মদের প্রিয় বাণী

হযরত মুহাম্মদ

হযরত মুহাম্মদ এর বাণী-তুমি যখন কারও সঙ্গে কথা বলবে, তখন ঘাড় ঘুরিয়ে বা বাঁকিয়ে বল না, তার দিকে সোজা হয়ে কথা বলবে৷ নচেত্ সে ভাবতে পারে তুমি তাকে অবজ্ঞা কর৷

কোনও মানুষ তোমার বাড়িতে এলে তাকে বিদায়কালে দরজা পর্যন্ত যেও এবং তিনি বিদায় নিলে দরজাটা জোরে বন্ধ করো না৷ এতে আগন্ত্তকের প্রতি বিরক্তি প্রকাশ পেতে পারে এবং সে মনে কষ্ট পেতে পারে৷

তোমার নিজেদের সন্তান-সন্ততিদের সঙ্গে সদয় ব্যবহার কর ও তাদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ দান কর৷
বাকহীন পশুর ব্যাপারে আল্লাহকে ভয় কর৷ সুস্থ অবস্থায় এদের উপর আরোহণ করবে এবং সুস্থ অবস্থায়তেই তাদেরকে ত্যাগ করবে৷

পশুদের মধ্যে লড়াই বাধানো ও লড়াই খেলানো নিষেধ৷

তোমরা যা ইচ্ছা খাও, যা ইচ্ছা তা পরিধান করো- এ শর্তে যে অহংকার ও অপব্যয় করবে না৷
যে ব্যক্তি জেনেশুনে কোনও জালিম(অত্যাচারী) ব্যক্তিকে সাহায্য ও সহযোগিতা করল সে নিঃসন্দেহে ধর্ম হতে বের হয়ে গেল৷

হযরত মুহাম্মদ এর প্রিয় বাণী

যে ব্যক্তি প্রতিশোধের শক্তি থাকা সত্ত্বেও ক্ষমা করে দেয় সে আমার নিকট সর্বাপেক্ষা প্রিয়৷

তুমি তোমার ভাইদের বিপদ দেখে আনন্দ প্রকাশ করবে না৷

যে ব্যক্তি দুনিয়াতে দু-মুখো নীতি অবলম্বন করবে, কেয়ামতের দিন তার মুখে আগুনের জিহ্বা থাকবে৷

যে ব্যক্তি নিজের জিহ্বাকে সংযত রাখবে, কিয়ামতের দিন (বিচারদিবস) আল্লাহ তার দোষত্রুটির উপর আবরণ ফেলে দেবেন৷
(হাদিস)

ভাললাগলে শেয়ার করবেন

Adhunik Bangla kobita 1970-2020

Bangla kobita

Bangla kobita আশির দশক থেকে বর্তমান পর্যন্ত বিভিন্ন ধারায় প্রবাহিত। বাংলা কবিতার দিক বদল হয়েওছে একাধিক শক্তিশালী কবির হাত ধরে। আধুনিক বাংলা কবিতা আজও পাঠক হৃদয়ে ভালবাসার ঝড় তোলে।

Bangla kobita

Adhunik Bangla kobita 1970-2020

Sunil Gangopadhyay best Bangla kobita :- 

ভালোবাসি ভালোবাসি’

ধরো কাল তোমার পরীক্ষা,
রাত জেগে পড়ার
টেবিলে বসে আছ,
ঘুম আসছে না তোমার
হঠাত করে ভয়ার্ত কন্ঠে উঠে আমি বললাম-
ভালবাসো?
তুমি কি রাগ করবে?
নাকি উঠে এসে জড়িয়ে ধরে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো ক্লান্ত তুমি,
অফিস থেকে সবে ফিরেছ,
ক্ষুধার্ত তৃষ্ণার্ত পীড়িত,
খাওয়ার টেবিলে কিছুই তৈরি নেই,
রান্নাঘর থেকে বেরিয়ে
ঘর্মাক্ত আমি তোমার
হাত ধরে যদি বলি- ভালবাসো?
তুমি কি বিরক্ত হবে?
নাকি আমার হাতে আরেকটু চাপ দিয়ে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো দুজনে শুয়ে আছি পাশাপাশি,
সবেমাত্র ঘুমিয়েছ তুমি
দুঃস্বপ্ন দেখে আমি জেগে উঠলাম
শতব্যস্ত হয়ে তোমাকে ডাক দিয়ে যদি বলি-ভালবাসো?
তুমি কি পাশ ফিরে শুয়ে থাকবে?
নাকি হেসে উঠে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছি দুজনে,
মাথার উপর তপ্ত রোদ,
বাহন পাওয়া যাচ্ছেনা এমন সময়
হঠাত দাঁড়িয়ে পথ
রোধ করে যদি বলি-ভালবাসো?
তুমি কি হাত সরিয়ে দেবে?
নাকি রাস্তার সবার
দিকে তাকিয়ে
কাঁধে হাত দিয়ে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো শেভ্ করছ তুমি,
গাল কেটে রক্ত পড়ছে,
এমন সময় তোমার এক ফোঁটা রক্ত হাতে নিয়ে যদি বলি-
ভালবাসো?
তুমি কি বকা দেবে?
নাকি জড়িয়ে তোমার গালের রক্ত আমার
গালে লাগিয়ে দিয়ে খুশিয়াল গলায় বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো খুব অসুস্থ তুমি,
জ্বরে কপাল পুড়ে যায়,
মুখে নেই রুচি,
নেই কথা বলার অনুভুতি,
এমন সময় মাথায় পানি দিতে দিতে তোমার মুখের
দিকে তাকিয়ে যদি বলি-ভালবাসো?
তুমি কি চুপ করে থাকবে?
নাকি তোমার গরম শ্বাস আমার শ্বাসে বইয়ে দিয়ে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো যুদ্ধের দামামা বাজছে ঘরে ঘরে,
প্রচন্ড যুদ্ধে তুমিও অংশীদার,
শত্রুবাহিনী ঘিরে ফেলেছে ঘর
এমন সময় পাশে বসে পাগলিনী আমি তোমায়
জিজ্ঞেস করলাম-
ভালবাসো?
ক্রুদ্ধস্বরে তুমি কি বলবে যাও…
নাকি চিন্তিত আমায় আশ্বাস দেবে, বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো দূরে কোথাও যাচ্ছ
তুমি,
দেরি হয়ে যাচ্ছে,বেরুতে যাবে,
হঠাত বাধা দিয়ে বললাম-ভালবাসো?
কটাক্ষ করবে?
নাকি সুটকেস ফেলে চুলে হাত বুলাতে বুলাতে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো প্রচন্ড ঝড়,উড়ে গেছে ঘরবাড়ি,
আশ্রয় নেই
বিধাতার দান এই পৃথিবীতে,
বাস করছি দুজনে চিন্তিত তুমি
এমন সময় তোমার
বুকে মাথা রেখে যদি বলি ভালবাসো?
তুমি কি সরিয়ে দেবে?
নাকি আমার মাথায় হাত রেখে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

ধরো সব ছেড়ে চলে গেছ কত দুরে,
আড়াই হাত মাটির নিচে শুয়ে আছ
হতভম্ব আমি যদি চিতকার করে বলি-
ভালবাসো?
চুপ করে থাকবে?
নাকি সেখান থেকেই
আমাকে বলবে,
ভালোবাসি, ভালোবাসি…

যেখানেই যাও,যেভাবেই থাক, না থাকলেও দূর
থেকে ধ্বনি তুলো,
ভালোবাসি, ভালোবাসি, ভালোবাসি…

দূর থেকে শুনব তোমার কন্ঠস্বর, বুঝব
তুমি আছ, তুমি আছ
ভালোবাসি,ভালোবাসি…

Shakti Chattopadhyay best Bangla kobita:-

একবার তুমি,- শক্তি চট্টোপাধ্যায় 

একবার তুমি ভালোবাসতে চেষ্টা করো–
দেখবে, নদির ভিতরে, মাছের বুক থেকে পাথর ঝরে পড়ছে
পাথর পাথর পাথর আর নদী-সমুদ্রের জল
নীল পাথর লাল হচ্ছে, লাল পাথর নীল
একবার তুমি ভালোবাসতে চেষ্টা করো ।

বুকের ভেতর কিছু পাথর থাকা ভালো- ধ্বনি দিলে প্রতিধ্বনি পাওয়া যায়
সমস্ত পায়ে-হাঁটা পথই যখন পিচ্ছিল, তখন ওই পাথরের পাল একের পর এক বিছিয়ে
যেন কবিতার নগ্ন ব্যবহার , যেন ঢেউ, যেন কুমোরটুলির সালমা-চুমকি- জরি-মাখা প্রতিমা
বহুদূর হেমন্তের পাঁশুটে নক্ষত্রের দরোজা পর্যন্ত দেখে আসতে পারি ।

বুকের ভেতরে কিছু পাথর থাকা ভাল
চিঠি-পত্রের বাক্স বলতে তো কিছু নেই – পাথরের ফাঁক – ফোকরে রেখে এলেই কাজ হাসিল-
অনেক সময়তো ঘর গড়তেও মন চায় ।

মাছের বুকের পাথর ক্রমেই আমাদের বুকে এসে জায়গা করে নিচ্ছে
আমাদের সবই দরকার । আমরা ঘরবাড়ি গড়বো – সভ্যতার একটা স্থায়ী স্তম্ভ তুলে ধরবো
রূপোলী মাছ পাথর ঝরাতে ঝরাতে চলে গেলে
একবার তুমি ভলবাসতে চেষ্টা করো ।

অবনী বাড়ি আছো, – শক্তি চট্টোপাধ্যায় 

অবনী বাড়ি আছো
অবনী বাড়ি আছো
দুয়ার এঁটে ঘুমিয়ে আছে পাড়া
কেবল শুনি রাতের কড়ানাড়া
‘অবনী বাড়ি আছো?’

বৃষ্টি পড়ে এখানে বারোমাস
এখানে মেঘ গাভীর মতো চরে
পরাঙ্মুখ সবুজ নালিঘাস
দুয়ার চেপে ধরে–
‘অবনী বাড়ি আছো?’

আধেকলীন হৃদয়ে দূরগামী
ব্যথার মাঝে ঘুমিয় পড়ি আমি
সহসা শুনি রাতের কড়ানাড়া
‘অবনী বাড়ি আছো?’

Joy Goswami best Bangla kobita:-

মালতীবালা বালিকা বিদ্যালয়, জয় গোস্বামী

বেণীমাধব, বেণীমাধব, তোমার বাড়ি যাবো
বেণীমাধব, তুমি কি আর আমার কথা ভাবো?
বেণীমাধব, মোহনবাঁশি তমাল তরুমূলে
বাজিয়েছিলে, আমি তখন মালতী ইস্কুলে
ডেস্কে বসে অঙ্ক করি, ছোট্ট ক্লাসঘর
বাইরে দিদিমণির পাশে দিদিমণির বর
আমি তখন নবম শ্রেণী, আমি তখন শাড়ি
আলাপ হলো, বেণীমাধব, সুলেখাদের বাড়ি
বেণীমাধব, বেণীমাধব, লেখাপড়ায় ভালো
শহর থেকে বেড়াতে এলে, আমার রঙ কালো
তোমায় দেখে এক দৌড়ে পালিয়ে গেছি ঘরে
বেণীমাধব, আমার বাবা দোকানে কাজ করে
কুঞ্জে অলি গুঞ্জে তবু, ফুটেছে মঞ্জরী
সন্ধেবেলা পড়তে বসে অঙ্কে ভুল করি
আমি তখন নবম শ্রেণী, আমি তখন ষোল
ব্রীজের ধারে, বেণীমাধব, লুকিয়ে দেখা হলো
বেণীমাধব, বেণীমাধব, এতদিনের পরে
সত্যি বলো, সে সব কথা এখনো মনে পড়ে?
সে সব কথা বলেছো তুমি তোমার প্রেমিকাকে?
আমি কেবল একটি দিন তোমার পাশে তাকে
দেখেছিলাম আলোর নীচে; অপূর্ব সে আলো!
স্বীকার করি, দুজনকেই মানিয়েছিল ভালো
জুড়িয়ে দিলো চোখ আমার, পুড়িয়ে দিলো চেখ
বাড়িতে এসে বলেছিলাম, ওদের ভালো হোক।
রাতে এখন ঘুমাতে যাই একতলার ঘরে
মেঝের উপর বিছানা পাতা, জ্যো‍‍‌ৎস্না এসে পড়ে
আমার পরে যে বোন ছিলো চোরাপথের বাঁকে
মিলিয়ে গেছে, জানি না আজ কার সঙ্গে থাকে
আজ জুটেছে, কাল কী হবে? – কালের ঘরে শনি
আমি এখন এই পাড়ায় সেলাই দিদিমণি
তবু আগুন, বেণীমাধব, আগুন জ্বলে কই?
কেমন হবে, আমিও যদি নষ্ট মেয়ে হই?

কলঙ্ক আমি কাজলের, জয় গোস্বামী 

কলঙ্ক, আমি কাজলের ঘরে থাকি
কাজল আমাকে বলে সমস্ত কথা
কলঙ্ক, আমি চোট লেগে যাওয়া পাখি—
বুঝি না অবৈধতা।
কলঙ্ক, আমি বন্ধুর বিশ্বাসে
রাখি একমুঠো ছাই, নিরুপায় ছাই
আমি অন্যের নিঃশ্বাস চুরি ক’রে
সে-নিঃশ্বাসে কি নিজেকে বাঁচাতে চাই?
কলঙ্ক, আমি রামধনু জুড়ে জুড়ে
দিন কাটাতাম, তাই রাত কাটতো না
আজ দিন রাত একাকার মিশে গিয়ে
চিরজ্বলন্ত সোনা
কলঙ্ক, তুমি প্রদীপ দেখেছো? আর প্রদীপের বাটি?
জানো টলটল করে সে আমার বন্ধুর দুই চোখে?
আমি ও কাজল সন্তান তার, বন্ধুরা জল মাটি
ফিরেও দেখি না পথে পড়ে থাকা
বৈধ-অবৈধকে—
যে যার মতন রোদবৃষ্টিতে হাঁটি…

ঝাউ গাছের পাতা, জয় গোস্বামী 

মিত্রা দিদি, তোমাকে নিয়ে কাব্য
লেখেনি কোন পুরুষ কোন দিন।
গলির মোড়ে বাজেনি সম্মিলিত
শীৎকার, বখাটে ছেলেদের।
তোমাকে দেখতে আসেনি পাত্রপক্ষ,
এসেছিল শুধু মেপে নিতে,
তোমার বুক, চুল, নিতম্ব
যাবতীয় সব শারিরিক।
কত বার গেছ তুমি কামরূপ-কামাক্ষা ?
কত বার ছুঁয়েছ তুমি কাম পীঠে সিঁদুর ?
কত বার পাল্টেছ জ্যোতিষি তুমি ?
কত বার করিয়েছ জাদুটোনা ?
কত যুগ উপবাসী তুমি ঢেলেছ দুগ্ধ,
সুগঠিত শিবলিঙ্গে ?
সে খবর জানে শুধু,
একলা রাতের পাশ বালিশ।

Srijato best Bangla kobita:-

অপেক্ষা, শ্রীজাত

ভ্রু পল্লবে ডাক দিয়েছ, বেশ।
আমার কিন্তু পুরনো অভ্যেস
মিনিট দশেক দেরীতে পৌঁছনো

তোমার ঘড়ি একটু জোরেই ছোটে
আস্তে করে কামড় দিচ্ছ ঠোঁটে
ঠোঁটের নীচে থমকে আছে ব্রণ

কুড়ি মিনিট? বড্ড বাড়াবাড়ি!
দৌড়ে ধরছ ফিরতিপথের গাড়ি
ফিরতিপথেই ভুল হল সময়—

আমারও সব বন্ধুরা গোলমেলে
বুঝিয়েদেবে তোমায় কাছে পেলে
কেমন করে গল্প শুরু হয়!

খোলা চুলের সজ্ঞা দিতে দিতে

সন্ধে নেমে আসবে বস্তিতে
ভাবছ তোমার অপেক্ষা সার্থক?

জানবেও না আমি ততক্ষনে
অন্ধকার চন্দনের বনে
ঘুরে মরছি, কলকাতার লোক…

Rudra Goswami best kobita:-

বৃষ্টি বৃষ্টি সোনা তোকে, রুদ্র গোস্বামী 

বৃষ্টি বৃষ্টি
জলে জলে জোনাকি
আমি সুখ যার মনে
তার নাম জানো কী ?

মেঘ মেঘ চুল তার
অভ্রের গয়না
নদী পাতা জল চোখ
ফুলসাজ আয়না।

বৃষ্টি বৃষ্টি
কঁচুপাতা কাঁচ নথ
মন ভার জানালায়
রাতদিন দিনরাত।

ঘুম নেই ঘুম নেই
ছাপজল বালিশে
হাঁটুভাঙা নোনা ঝিল
দুচোখের নালিশে।

বৃষ্টি বৃষ্টি
জলেদের চাঁদনি
দে সোনা এনে দে
মন সুখ রোশনি।

অসুখ, রুদ্র গোস্বামী 

আজকাল কি যে উল্টোপাল্টা বায়না শিখেছে ও
যখন তখন এসে বলবে, ওর একটা আকাশ চাই।
আর আমিও বোকার মতো সব কাজ ফেলে
ওর চোখের মাপের আকাশ খুঁজতে থাকি!
শুধু কী তাই! তাতেও আবার ওর আপত্তি।
এটাতে বলে মেঘ ভরতি তো ওটাতে একঘেয়ে আলো।
গোধূলি আকাশ দেখলেই ও আবার লজ্জায় মরে যায়।
আমার হয়েছে জ্বালা, মেঘ থাকবে না রোদ থাকবে না
এমন একটা আকাশ, আমি কোত্থেকে খুঁজে আনব?
গোলাপ হবে অথচ কাঁটা হবে না!
রঙটাও আবার লাল? এমন আবার হয় নাকি!
একটা কথা আমি কিছুতেই বুঝতে পারি না,
ভালবাসা বুকে এসে বসলেই মানুষ কেন পাখি হতে চায়!

Bappaditya Mukhopadhyay best Bangla kobita :-

নিয়তি, বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়  

মাতৃগর্ভে আসার প্রথম রাতে ভিতু মেয়েটি বলেছিল মৃদুসুরে
-‘মা শেয়াল গুলোকে চুপ করতে বল। আমার যে ভয় ভয় করে।’
মায়ের নাড়ি আঁকড়ে মেয়েটি সারারাত জেগেছিল সেদিন
মেয়েটি ভয়ে ভয়ে জেগেছিল দশমাস দশদিন।
প্রতম আলোয় এসে ডুকরে কেঁদে বলেছিল সে, -‘এত কালো কেন আমার আকাশ ?
কেন সারা পৃথিবী ছড়িয়ে মুঠো মুঠো গুমোট দীর্ঘশ্বাস ?’

তারপর একলা পুতুল খেলায় অবেলায় বেলা বয়ে গেছে বৈরাগী গানে
পুরুষ পুরুষ স্বপ্নগুলো মাঝরাতে এসে মই দিয়ে গেছে শরীরের পাকা ধানে।

পালকের মতো হালকা হাওয়ায় ভেসেছে স্কুল কলেজের হলুদ বিকেল গুলো
সিঁদুর জীবন দিল না তো কেও কত জন এল গেল।
এখন শরীরের রঙ দুচোখে মাখানো, দিন যাপনে গীতবিতান জেগে থাকে
যদি ভুল করে কোনও পথভোলা পথিক শরৎ মেঘে ডাকে।

আজও জীবনের বাসর ফুলদানি দিয়ে সাজাতে মেয়েটি নিজেরি পাপড়ি ছাঁটে
অনিবার্য নয় তবুও নিয়তি প্রতিদিন রাতে এক নতুন শেয়াল গরম স্বপ্ন চাটে।

 

Bengali Ghost story book pdf free download

Ghost story books pdfAll time best bengali ghost story. bengali ghost story books pdf free download – all time best bengali ghost story. 100 bochorer sera bhuter golpo. . Valo bhoot kalo bhoot sob ache.

100 years top bengali ghost story books pdf free download

bengali ghost story books pdf free download

হাফ ডোজন ভূতের গল্প, আনন্দমেলা a। এখানে সেরার সেরা গা ছমছমে ভূতের গল্প সাজিয়ে রাখা হয়েছে। প্রতিটি গল্প ভয়ংকর। আশাকরি গল্পগুলি পড়ে আপনি হরর দুনিয়ায় প্রবেশ করতে পারবেন।

Bengali horror story pdf download
Photo credit Google

Download

শুকতারা ১০১ ভূতের গল্প। এই গল্পগুলো নিয়ে নিশ্চয় নতুন করে কিছুই বলার নেই। এই বই প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গেই বাংলা সাহিত্যে আলোড়ন পড়ে গিয়েছিল। কত কপি বিক্রি হয়েছিল তার হিসেব নেই।

Bhooter golpo pdf
Photo credit Google

Download

হাড় কাপানো ভূতের গল্পের সম্ভার। প্রতিটা গল্প একে অপরের চেয়ে ভয়ংকর। শীর্ষেন্দু বাবু শুধু সম্পাদনা করেছেন তাই নয় যথেষ্ট প্রসংশা করেছেন। ওয়েলকাম টু হরর দুনিয়া।

Photo credit Google

Download

Bengali detective story download pdf
সেরা রহস্য-রোমাঞ্চ উপন্যাস

Read Online

Bengali horror story bengali ghost story books pdf free download

এই ২২ টা ভূতের গল্প আমার অত্যন্ত প্রিয়। আশাগুলি গল্পগুলি আপনাদেরকেও কাঁপিয়ে দেবে। বাংলা সাহিত্যের সেরা সেরা গল্পকারদের গল্পদিয়ে সাজানো হয়েছে বইটি।

  1. রামাই ভুত – তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
  2. ভীতু ভুত – রেভারেন্ড লালবিহারী দে
  3. মহেশের রথযাত্রা – রাজশেখর বসু
  4. জঙ্গল বাড়ীর বৌরানী – প্রেমেন্দ্র মিত্র
  5. উত্তর সিকিমের ভুত বাংলো – সমরেশ বসু
  6. রাত্রে – লীলা মজুমদার
  7. মোক্তার ভুত – শরদিন্দু বন্দ্যোপাধ্যায়
  8. ড্রাগন – নীহাররঞ্জন গুপ্ত
  9. ভুতুড়ে কামরা – নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়
  10. ভুতের জ্বর – বিমল কর
  11. ভয়ের পুকুর – সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়
  12. পাগলা মামার চার ছেলে – প্রফুল্ল রায়
  13. ইঁদারায় গন্ডোগোল – শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায়
  14. ভুত অদ্ভুত – সঞ্জীব চট্টপাধ্যায়
  15. লালকুঠিতে ডাক্তারবাবু – মহাশ্বেতা দেবী
  16. মুর্গিখেকো মামদো – সৈয়দ মুস্তফা সিরাজ
  17. হাবলু মামার ভুতের ব্যবসা এবং – দুলেন্দু ভোমিক
  18. সেই রাতে – গোরী দে
  19. খুনি – মানবেন্দ্র পাল
  20. ওরা তিনজন – রামপ্রসাদ রায়
  21. ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা – ফাতেমা আখতার
  22. অভিশপ্ত গোরস্তান – মহম্মদ ইলিয়াস

Download

bangla book pdf free download

সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়ের সম্পাদনায় নিম্ন লিখিত বইটি। এই বই এর গল্পগুলি রাতে না পড়ার অনুরোধ রইল। ভীতুরা এই বই থেকে দূরে থাকুন। সব বই সবার জন্য নয়। এই বই ভয়ানক। 

Bengali horror story

Download

Bangla free pdf book

Read online

bengali detective story books pdf free download

আচ্ছা এবার একটু হাসিমুখ হয়ে যাক। এবার হাস্যময় একটা ভৌতিক বই দি। নতুবা মনটা ভরবে না। লেখকের নাম শুনেই জিবে জল আসবে। প্রেমেন্দ্র মিত্র। যারা ভূতের গল্প পড়েন তারা নিশ্চয় প্রেমেন্দ্র মিত্রের নাম শুনেই বুঝে গেছেন ঠিক কত পরিমান মণিমুক্তা আছে এই বই এর পাতায় পাতায়। তাহলে আর দেরি কেন এখুনি ডাউনলোড করে পড়তে শুরু করে দিন।

Bengali detective story pdf
Photo credit Google

Download

bengali detective story books pdf free download  Kishore Cornel Samagra (All 04 Parts) – Syed Mustafa শিরাজ

bengali detective story books pdf
Photo credit Google

সিরাজের কর্নেল নীলাদ্রি সরকারকে কে আর না চেনে। যদি এই বইটা আপনার পড়া না হয়ে থাকে তাহলে   bengali detective story books pdf free download করে এখুনি পড়ে নেওয়া দরকার। এই বই এর গল্পগুলো ভূত হতে ভয়ংকর।

কিশোর কর্ণেল সমগ্র প্রথম খন্ড

৩৫২ পাতা ১৭ এমবি

প্রকাশকাল ২০০৫

কিশোর কর্ণেল  সমগ্র দ্বিতীয় খণ্ড  

৩৫২ পাতা ১০ এমবি

প্রকাশকাল ২০০৭

কিশোর কর্ণেল সমগ্র তৃতীয় খণ্ড   

৩৫২ পাতা ২০ এমবি

প্রকাশকাল ২০০৮

কিশোর কর্ণেল সমগ্র চতুর্থ খণ্ড    

৩৩৫ পেজ ৮ এমবি

প্রকাশকাল ২০১০

ভূতের গল্প হবে bengali ghost story books pdf free download হবে অথচ গোসাঁই বাগানের ভূত থাকবে না? এটা কখনো হয়। শীর্ষেন্দু মুখোপাধ্যায় এর নাম এলে এই Gosai baganer Bhoot বইটার নাম আসে।

খুব কম ভূতের গল্পের বই এতটা জনপ্রিয়তা পেয়েছে। Gosai baganer bhoot ছোট বড় সবার মন জুগিয়ে চলেছে এখনো।

bengali ghost story books pdf
Photo credit by Google

Download

আরও বেশ কিছু দুর্দান্ত  bangla book pdf free download link দিলাম

Download

bangla book pdf free download

Download

bangla book pdf

Download

Download

Download

ghost story books pdf free download করে পড়তে সবারই ভাললাগে। আশাকরি এই বইগুলিও মন ভরিয়ে দেবে। বইগুলি পড়ে ভাললাগলেই আমাদের স্বার্থকতা। আপনাদের ভাললাগা মন্দলাগা আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাবেন।

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo



Top five rabindranath tagore poems 

Top five rabindranath tagore poems 

when you cry must read Rabindranath Tagore poem. Rabindranath Tagore was a poet-philosopher who inspired a whole generation through his writings.


5 Rabindranath Tagore Poems that Make Him the Master of Our Hearts

Rabindranath Tagore Poem #1

If you cry
because the sun has gone
out of your life,
your tears will prevent you
from seeing the stars.

Tagore
Tagore


Rabindranath Tagore Poem #2

Sing the song of the moment in careless carols, in the transient light of the day;

Sing of the fleeting smiles that vanish and never look back;

Sing of the flowers that bloom and fade without regret.

Weave not in memory’s thread the days that would glide into nights.

To the guests that must go bid God-speed, and wipe away all traces of their steps.

Let the moments end in moments with their cargo of fugitive songs.

With both hands snap the fetters you made with your own heart chords;

Take to your breast with a smile what is easy and simple and near.

Today is the festival of phantoms that know not when they die.

Let your laughter flush in meaningless mirth like twinkles of light on the ripples;

Let your life lightly dance on the verge of Time like a dew on the tip of a leaf.

Strike in the chords of your harp the fitful murmurs of moments.

Rabindranath Tagore poem photos

Rabindranath Tagore poem #3

Song Offerings

Song offerings

Rabindranath Tagore poem #4

Rabindranath Tagore poems on love

Let Me Not Forget

If it is not my portion to meet thee in this lifetthenlet me ever feel that I have missed thy sightlet me not forget for a moment,

let me carry the pangs of this sorrow in my dreams

and in my wakeful hours.

As my days pass in the crowded market of this world

and my hands grow full with the daily profits,

let me ever feel that I have gained nothing

let me not forget for a moment,

let me carry the pangs of this sorrow in my dreams

and in my wakeful hours.

When I sit by the roadside, tired and panting,

when I spread my bed low in the dust,

let me ever feel that the long journey is still before me

let me not forget a moment,

let me carry the pangs of this sorrow in my dreams

and in my wakeful hours.

When my rooms have been decked out and the flutes sound

and the laughter there is loud,

let me ever feel that I have not invited thee to my house

let me not forget for a moment,

let me carry the pangs of this sorrow in my dreams

and in my wakeful hours.

Rabindranath Tagore poem on love

Rabindranath Tagore poem #5

Lost star


When the creation was new and all the stars shone in their first 

splendor, the gods held their assembly in the sky and sang 

`Oh, the picture of perfection! the joy unalloyed!’ 

But one cried of a sudden 

—`It seems that somewhere there is a break in the chain of light 

and one of the stars has been lost.’ 

The golden string of their harp snapped, 

their song stopped, and they cried in dismay 

—`Yes, that lost star was the best, 

she was the glory of all heavens!’ 

From that day the search is unceasing for her, 

and the cry goes on from one to the other 

that in her the world has lost its one joy! 

Only in the deepest silence of night the stars smile 

and whisper among themselves 

—`Vain is this seeking! unbroken perfection is over all!’

Rabindranath Tagore poem lost star

More Articles

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo

All time best Bengali quotes on friendship

All time best Bengali quotes on friendship

Bengali quotes on friendship – অনেকগুলো সেরা friendship quotes দিলাম প্রতিটাই Bengali quotes on friendship. বন্ধু মানেই যেন আবেগ আর উচ্ছাস। বন্ধু মানে বিশ্বাস।


Bengali quotes on friendship

Bengali SMS on friendship

বন্ধু বলতেই সেই পাঠশালা থেকে শুরু করে কতশত নানা রঙের দিন মনে পড়ে। বন্ধু বলতেই নিজেকে হারিয়ে ফেলি উদ্দাম একটা ঝড়ে। তাই শুধু চাই যেখানেই যাক বন্ধুরা ভাল থাক


বন্ধু তোর জন্য রাখা আছে বুকের ভেতর

আদর দিয়ে সাজিয়ে রাখা

মাঠ ভর্তি ঘাস 

যে পাখিটার ডানা ভেঙেছিল

তুই তো তাকে দিয়েছিল

একজীবন বাঁচার মতো টকটকে নীল আকাশ

Bengali shayari photo

বন্ধু তুই না থাকলে আর কোনওদিন

আমার মনে ফুল ফুটত না

বন্ধু তুই না থাকলে আর কোনওদিন

আমার আকাশে সূর্য উঠত না   

আয় না আবার হারিয়ে যাই
বন্ধুবেলার ভিড়ে
যেখানে নেই ধনী-গরিব
বা বেকারত্বের জ্বালা
আয় না হারাই
যেখানে সবাই মিলে ভাত খেয়েছি
একটা মাত্র থালা   

Bengali sms

কখনো যদি যাই হারিয়ে

জীবন নদীর চোরা গলির বাঁকে

বন্ধু ডাকবি কি সেই নাম ধরে

পরিচিত সেই ডাকে ? 


জানিরে জানি তুইও একদিন পালটে যাবি

শুরু হবে উলটো চাওয়া পাওয়া

পালটাবে না শুধু স্মৃতিগুলোই

যতই বইতে থাক 

সব পুড়িয়ে দেওয়া হাওয়া

Friendship SMS

তোর মতো একজন বন্ধু থাকা মানে
পুরো একটা আকাশ পকেটে থাকা
তুই না থাকলে
❤শালা❤
বাঁদিকের বুক পকেটটা যেন ফাঁকা

বন্ধু মানে পাতায় না লেখা

এক পবিত্র 

গল্প

বন্ধু মানে

পুরোটাই ভালবাসা

রাগ অভিমান

অল্প 

Friendship sms

বন্ধুত্ব মানে-

বয়সের সাথে বয়সের মিল নয়

বন্ধুত্ব মানে-

মনের সাথে মনের, গোপনে হয়ে যাওয়া পরিচয়।(collected)

বন্ধুত্ব মানে-

একাকীত্বের প্রতি অভিশাপ

বন্ধুত্ব মানে-

খুব প্রয়োজনে, খুঁজে পাওয়া ওই দুটি হাত।

(Collected)

Friendship SMS


আজকে একলা হারিয়ে গেছ

মনকেমনের নীড়ে

ইচ্ছে করে আবার হারাই

বন্ধু দিনের ভিড়ে


বন্ধু মানে কার্বনহীন নিশ্বাস

বন্ধু মানে বেঁচে থাকার বিশ্বাস

বন্ধু মানে নিজেকে প্রকাশের খাতা

বন্ধু মানে প্রাণ দিয়ে দেওয়ার মতো দাতা  

Friendship SMS

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo





Love kobita Bangla প্রেমের কবিতা

ভুলে যাওয়া

Love kobita bangla:- Romantic Bangla Kobita or love Kobita Bangla is very popular for every lover. we know about romantic love poem in Bangla language we say Bangla romantic Kobita .

here you will gate all about romantic Bangla Kobita. if you love someone and want to give some romantic moment has a wish, then you can give this poem as best gift poem is very popular to all people. If you want to Bengali romantic novel then visit another page.

and it this poem are very romantic then it will more popular we get some poems about love but these are not so romantic so reader do not get romance as they once for this reason here I have posted some romantic Bangla Kobita for every lovers. And I believe you love every bangla poem.

 love kobita bangla

Love kobita bangla :-

Love kobita bangla জগতে আপনাকে স্বাগত জানাই। আশাকরি প্রতিটি বাংলা love kobita আপনার ভাল লাগবে।

সেই সন্ধ্যা

গোধূলি শেষে পাখিদের গাছে ফেরা হলে
সন্ধ্যা এসে পাতার ভিড়ে তারা এঁকে যায়
আকাশে । কিম্বা শিমূল গাছের পাতার ফাঁকে জোনাকি
যখন দেখি একাকী  ছাদের উপর-
ঘামে গলে যায় মনের রঙ । কানে ভাসে
গ্রাম্য নববধূর নতুন শেখা শাঁখের সুর ।
আনমনে অজান্তে বলি –
হতেও পারত সঙ্ঘমিত্রা এমন একটা সন্ধ্যা
তোমার আমার ।আমি ছাদে দাঁড়িয়ে চেটে নিতাম
তোমার প্রদীপালোক মুখ তুলসী তলার ।
যদি লক্ষ্মী পাঁচালীর সুরে মুখর করে দিতে মন
কীএমন পালাবদল হত জীবনে !
এখন বহুদূর গ্রামের টিম টিম করা আলোগুলো
চোখে জ্বলে, পাশের বাড়ির কন্যা শিশুর কান্না
কোন এক আমাদের হারানো গল্প বলে । এমন হলে
কী পরিবর্তন হত জীবনের আঙিনায় ?
শরীরের ধর্ম কী নষ্ট হত যদি তোমার আমার ঘনিষ্ঠ মুহূর্তে
কোনও এক কন্যা শিশু কেঁদে যেত বিছানায় ।
স্বপ্ন ঝলকানির মতো তারা খসে পড়ল আকাশে
জানি নতুন সংসার সমুদ্রে ঝাঁপ দিতে চাও তুমি
এমন সন্ধ্যায় খোলা আকাশের তলায় দাঁড়িয়ে
কখনো ভাবার সময় হয় নি পরিবার তোমার আমার।
ধীর পায়ে রাত আসে শেয়ালের নিভে যাওয়া ডাকে
তবুও যে দেখি বেঁচে থাকা কিছু স্বপ্নিল তারা কুয়াশার ফাঁকে ।

খেলা ঘর

আয়, দু’জনে নীরবে দু দণ্ড বসি
শেষবার পাশাপাশি নদীর বালির উপর
যেখানে আমার তোর ছেলে-মেয়ে বেলা
যেখানে শৈশব স্মৃতির কবর
আজ কথা বলার শক্তি হারিয়েছে দুটো মুখ,
হারিয়েছি পুতুল দিনের বর-বউ খেলা।
অসুখ সিক্ত নীরব চোখের তারাতে
আরও কিছু কান্নার হুল ফোটাতে,
আয়, দু’জনে নীরবে দু’দণ্ড বসি।
আয়, খেলার খেলা
এক দণ্ড আবার ভালবাসি।

If you love Bangla shayari or bangla sad shayari, then visit here :- Bengali romantic shayari

ডোরাকাটা পথ

সন্ধ্যা, তারা আঁকা তুলিতে শেষ রঙ দিলে দেখি হাতে হাত রেখে চলে যায়
যুবক যুবতী আরেক পৃথিবীর দিকে, পিঠে তাদের
জ্যোৎস্না পড়েছে। তোমার আমার মতই।
তোমার আমার মতই
প্রথম সূর্য ডোবা হতে এদেরও যাওয়া আসা ।
কাঁচা রাস্তার উপর।
তারপর । প্রীতির শেষ প্রহরে, পায়ের চিহ্ন
মুছে যায়, সময়ের নির্মম পিচে
অবশিষ্ট গন্ধ টুকু পড়ে থাকে হৃদয়ে হৃদয়ে ।

Bangla sad kobita for every real lovers

Bangla sad Kobita

আমার আমি
বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়

আমি বুকের ভেতর
বিরহ বিছিয়ে রাখি
আমি জ্যোৎস্না আতর
আঁজলা ভরে মাখি

আমি রাতের ঘরে
লালন বাউল গান
আমি চোখের ভেতর
কুমারী মেয়ের স্নান

আমি চুলের খোপায়
বুনো পলাশ ফুল
আমি শরীর নেশায়
এক টুকরো ভুল

আমি প্রেমিকা চোখে
অভিমানের ছায়া
আমি বিধবার শোকে
গর্ভ ভরাট কায়া

আমি কাজল কোনের
ফসিল নোনা জল
আমি কাঙাল দিনের
ধূসর স্মৃতির সম্বল

আমি পতিতা মেয়ের
ঝলসে যাওয়া প্রেম
আমি আলতা পায়ে
সতীত্বে মোড়া ফ্রেম

আমি ভ্রষ্ট মনের
নষ্ট দেহ চাঁদ
আমি সন্ত জনের
সুপ্ত শরীর ফাঁদ

আমি শৈশবে ভাঙা
তোমার খেলার পুতুল
আমি যৌবন রাঙা
তোমার দু’বুক ফুল

আমি সম্পর্ক সভ্যতার
মুখোশ পরিচয়
আমি আলোর আঁধার
সবার মনের ভয়।

আমি পথের ধূলায়
হারিয়ে যাওয়া দিন
আমি বিকেল বেলায়
হলুদ রাঙা ফড়িং

আমি বিরহের বনফুল
লাল সবুজে মাখা
আমি শেকড় ছেঁড়া মূল
মাটির কবর ঢাকা।

প্রেমের প্রান্তে

তুমি চলে গেলে
তারপর থৈ থৈ যৌন সমুদ্রে সাঁতার কেটে
পেরিয়ে গেছে পঞ্চাশটা বছর। মনে –
কতো মাকড়শার জাল, শ্যাওলা ধরা দেওয়াল
পুরানো ছেঁড়া ফাটা স্মৃতির ধূসর টুকরো
পড়ে আছে একটা বুড়ো অভিমান
কয়েকশো থুরথুরে ব্যথা । আধমরা রাগ,
আর-আত্ম প্রকাশের সুযোগ না পাওয়া
চোখের ভেতরের খানিকটা নোনা জলের দাগ।

আত্মঘাতী হামলা

আঙুলের ফাঁকে আত্মহত্যা রত বিপ্লবী সিগারেট
রেখে যায় কিছু গোপন আশা
ব্যথা বলে কিছু নেই, প্রাণপণ প্রতিশোধ
প্রেমিকারেই মতো
পুড়িয়ে পোড়াব বলেই
নিষ্ঠুর চুম্বনে এত গোপন ভালোবাসা ।

দ্বিতীয় গৃহ যুদ্ধ

অন্তরবাসী বধূর সাথে দিনরাত যুদ্ধ,
জয় পাবার পর ক্লান্ত শরীরে আদিত্য
মিত্রার কাছে এসে বলেছিল-
দু’চোখে ঘুম আঁকতে পারো মিত্রা
পারো যুগান্তরের মরু প্লাবন এক মুহূর্তে থামাতে !
বল পারবে কি আবার সাবানায় বৃষ্টি নামাতে?
ডানা ভাঙা চাতকের মতো থরথর করে
কাঁপছিল হাত, ঝরছিল অদৃশ্য রক্তের স্রোত শরীরে
চোখে গড়িয়ে নামছিল ক্ষুধার্ত অন্ধকার, তবু
আদিত্য বলেছিল বারবার-
বল পারবে কি বিবাহিত হালখাতা ফেলে
সাবানায় সবুজ বাড়ি বানাতে !
উত্তর দেয়নি মিত্রা ।
শান দিচ্ছিল তলোয়ার ।
এক গৃহ যুদ্ধে জয় পেয়ে আদিত্য
ঝাঁপাল দ্বিতীয় গৃহ যুদ্ধে আবার ।

Here Bangla hot story or bangla choti for you

একটাই লাইক
বাপ্পাদিত্য মুখার্জ্জী

এখনো ফুরিয়ে যায়নি আকাশ
বালিশের কোনে কিছু কথা ছড়িয়ে আছে
কানে ফিসফিস করে
তাই ঘুম চুরি যায় ঘুমন্ত স্ত্রীর পাশে
মাথা ঠুকে মরি এখনো
নোনাধরা সেই সব দেওয়ালে।
মনের ওয়ালে শুধু টিমটিম করে নিজের লাইক টুকু
কোনো কমেন্ট নেই কারুর
আমিও কমেন্ট করিনি কোনোদিন
কিছু কষ্টের কোনো কমেন্ট হয় না কখনো
শুধু একটাই লাইক পড়ে থাকে

All time hit Love kobita bangla

Bangla kobita photo

আসামী যেদিন আমি
বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়
১২-ই ফাল্গুন
শেষ পর্যন্ত সবার সন্দেহটাই মিলে গেল। মায়ের ব্রেন ক্যান্সার।
বিশ্বাস করুণ ত্রুটি রাখিনি চিকিৎসার। জমি থেকে ঘটি বাটি
যা ছিল সব হয় বন্ধক নয় বিকিয়ে গেল। মূর্খ নই বেকার বলে
জানতাম বাঁচবে না। তবু যে মা। যখন ঘোরের ভেতরে
মা ভুল বকত, দেখত বাবা এসে দাঁড়িয়ে আছে বিছানার ধারে।
দুহাত বাড়িয়ে নাকি ডাকত বাবা। কিংবা যখন যন্ত্রণায় মুক্তি
চেয়ে মা বলত, ‘হে কৃষ্ণ এবার নাও আর যে সহ্য হয় না’
তখন মায়ের দু’চোখ দিয়ে জল ঝরত দরদর করে।
ঘরে ফাটা পয়সা ছিল না আর। মায়ের চিকিৎসার কেমোথেরাপি খরচ,
ওষুধ, ডাক্তার দেখাতে যাওয়ার গাড়ি ভাড়া, কিচ্ছু ছিল না।
তারাদের দিকে তাকালে দেখতে পেতাম- পড়ন্ত বিকেলে
মা চাপা কলের থেকে জল নিয়ে আসছে কলশি ভরে। কপালে
ঝিক ঝিক করছে সিঁদুরের টিপ। আমার খুব কান্না পেত।
আমি সারা রাত জেগে মায়ের যন্ত্রণাকাতর ঘুমন্ত মুখের দিকে
তাকিয়ে স্মৃতি সঞ্চয় করতাম। আগামীর একলা পথের জন্য।
২১-শে আষাঢ়
সকাল নটা নাগাদ মা নাকে তুলো গুঁজে ধূপের গন্ধ ছড়িয়ে
শেষ বার পায়ের পাতায় আলতা মেখে জীবনের ওপারে চলে গেল।
কয়েকটা মেঘ মাথায় নিয়েও যখন মায়ের নাভি মণ্ডল পুড়ে ছাই
তখন বিকেল চারটা পেরিয়ে গেছে। শুনলাম তিন পোয়া দোষ পেয়েছে মা।
চণ্ডীপাঠ করাতে হবে। সব কাজ যেদিন শেষ হল
তখন আমার নিজের ঠিকানা বলেও কিছুই রইল না। শেষ আশা
নিশা কবেই জানিয়ে গেছে, -‘বাবা সরকারি চাকরি করা ছেলে চায়।’
২৫-শে আষাঢ়
মেঘলা বিকেলে বেরিয়ে গেলাম রূপসীবাংলা এক্সপ্রেস ধরে খড়গপুর
ট্রেনেই পরিচয় হল কাদের ভাই এর সাথে। কাদেরভাই সেদিন আমার
বিনা টিকিটের ফাইন ভরে ছিল। তাঁর হাত ধরেই চাকুলিয়া এসেছিলাম।
তারপর ?
বিশ্বাস করুণ আমরা কেওই মানুষ মারব বলে জন্মাইনি।
অভাব অজুহাত স্বভাব যাই বলুন। বিশ্বাস করুণ বা নাই করুণ সত্যি সেদিন
মানুষ মারতে বোম ছুড়িনি। আমরা গুলিও চালাতাম না যদি না পুলিশ
মিথ্যে জালে কাদের ভাইকে ডেকে কপালে মৃত্যু এঁকে দিত। সত্যি
সেদিন চটকলে আমাদের কেও ধর্ষণ করেনি। সেদিন বৃষ্টি ভিজেও
রঞ্জিকা একটা দাবী নিয়ে লোলুপ নেতাদের কাছে গিয়েছিল। ও শুধু আমার
স্বপ্ন সঙ্গিনী ছিল না। ও ছিল কাদেরভাই এর পর আমাদের বিচক্ষণ দলনেত্রী।
যখন চটকল থেকে রঞ্জিকা রাতেও ফিরল না। আমরা গেলাম ভোর রাতে
গিয়ে দেখি রক্ত মাখামাখি রঞ্জিকা নিথর ভাবে ধূলায় পড়ে আছে।
সেদিন থেকেই বোবা দুটো চোখ দুমড়ে মুচড়ে গেছে জ্বলন্ত জীবন যন্ত্রণায়
১২-ই কার্তিক
আমার বন্ধুক থেকে তিনটা বুলেট চেটেছিল তিনটা কদর্য কপাল
ওই ছিল আমার প্রথম প্রতিশোধ। দূরের জঙ্গল দিকে চাইলেই যে দেখতাম
রঞ্জিকা সাঁওতাল শিশুদের বন্দুকের বর্ণপরিচয় শিক্ষা দিতে ব্যস্ত। ঝাপসা হয়ে
আসত আমার দু’চোখ। তারপর গোগ্রাসে হাঁড়িয়া গিলে টলে টলে
চলে যেতাম নদীটার ধারে। ডুবন্ত সূর্য টাকে দেখে মনে হত
মায়ের কপাল রাঙিয়ে যাওয়া সেই সিঁদুরের টিপ।
দূরের শেয়ালের সুরে পা ফেলে যখন সন্ধ্যা নামত কাজুবাদাম জঙ্গলে!
মনে পড়ত গ্রামের কথা, মায়ের কথা, নিশার কথাও।
২২-শে কার্তিক
কুন্তলের সাথে ভাত খেতে বসেছি সবে। সেদিনই ছিল আমাদের
আত্ম সমর্পণ করার দিন। নিজে এসে ধরা দিলে চাকরি। সঙ্গে নাকি
শাস্তিটাও মোকুব হয়ে যাবে। কিন্তু! মিনিট কয়েক বাদে কুন্তলের কপাল
বেয়ে রক্তের ধারা গড়িয়ে নামলো ভাতের থালায়। প্রায় তিন ঘণ্টা
গুলি ছোড়া ছুড়ি করে যখন অবশিষ্ট আমরা তিনজন শহীদ হতে বাকি
ওপার থেকে ভেসে এলো সমাচার আত্মসমর্পণ। নিরুপায় তখন
তাই একে একে ধরা দিলাম অন্ধ বিচারের বন্ধ পিঁজরায়। ধিক্কারে।
তারপর ?
২৪-শে কার্তিক
প্রবীণ বিচারক রায় দিলেন ৩০২ নং ধারায় কলমের করুণ মুখ ভেঙে।
ওরা কাঁদল। আমি হাসলাম। উন্মাদের মত হো হো করে হাসলাম।
উচ্চ আদালতে মাথা ঠুকিনি আর। এটাই আমার দারিদ্রতার শ্রেষ্ঠ বিচার।
১৫-ই অঘ্রাণ
কালকেই মিটে যাবে অভাবের যত নিদারুণ নির্মল জ্বালা। তাই তো
আমি এখনও হাসছি ধীর পায়ে এগিয়ে আসছি ফাঁসির দড়ির দিকে।
আমি ক্ষুদিরাম কিম্বা ভগৎ সিং নই যে আপনারা চিরদিন মনে রেখে দেবেন
জানি আমি,- দুদিন আমাদের নিয়ে শুধু ব্রে-কিং নিউজ তারপর পত্রিকাতেও ফিকে।
১৬-ই অঘ্রাণ
এখন দুহাত পিছনে বাঁধা। পাশে বিমর্ষ ফাঁসুড়েকে দেখা যায়।
গলার দড়িতে প্রিয় কলার গন্ধ পাচ্ছি পরিষ্কার।
কালো কাপড়ে মুখটাও এবার ঢাকা পড়ল। গলাটা বন্ধ হয়ে আসছে গরম নিশ্বাসে।
সামনে কেও নেই। অন্ধকার। বিশ্বাসে দাঁড়িয়ে আমার মা। হাত নাড়িয়ে ডাকছে আমায়।

কাজল কাজল দিন
বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়

তোর ওই চোখের পাতার
পাগলা বনে হারিয়ে গেছে মন
অশ্রু ঢেউ উথাল পাথার
আঁকড়ে আছি কাজল কালো কোন

যেদিন তুই থাকবি না আর
থাকব না আর আমি
বাজবে মেঘে একতারার তার
আকাশ গাঙে দিগন্ত ময় কাজল রেখা টানি

নতুন ভাবে নতুন কায়ায়
আবার হবেরে যেদিন দেখা
যতই গভীরে থাক কবিতা ছায়ায়
দু’চোখ ভরে তুলেই নেবো কাজল কালো লেখা

আজকে না হয় বাজুক বুকে
হাঁড়িয়া সুরে মাতাল মাতাল বীণ
কাটুক রাত সুখের বুকে পেরেক ঠুকে
আমি চোখের তারায় আসতে দেখি কাজল কাজল দিন

একলা আকাশ
বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়

আমার জানালায় একমুঠো একলা আকাশ
ফাঁকা মাঠে চেয়ে দেখি
সাইকেলে ঝাঁকে ঝাঁকে উড়ে যায়-
স্মৃতির পাখি দূর থেকে সুদূরের অতীত দিগন্তে।
মাটির ফাটা বুক থেকে রোদ
রোজ যখন সর্পিল ধোঁয়ার মতো রস চুরি করে
আমার একলা ঘরে পরিযায়ী প্রেমিকাদের আত্মা
ছায়ার শরীরে ভিড় করে দেওয়ালের গায়ে।
আমার মনেও রস ছিল বুঝি !
ভিজেছিলাম কোনও এক আম বকুল গন্ধ ভেজা দুপুরে ?

তারপরে ডাহুক ডাহুকী মিলে
পালকের মতো নরম সন্ধ্যার চাদর
মেলে দিয়ে গেছে গাছের পাতায় পাতায়।
ভয়ার্ত চোখে আমি দেখেছি, কতশত অশরীরী
খিল খিল করে হেঁটে চলে যায়
আমার চোখে ধারালো নখে জলের আঁচড় কেটে
ফেলে আসা মেঠো মনের রাস্তায়।

Bangla premer kobita :-

ভাঙা বাঁশির গান
বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায়

যতেক না বলা সব অভিমানের কথা
একলা পুড়ে স্মৃতির তাপ দিলে
ব্যর্থ প্রেমের হিসেব বিহীন ব্যথা
হু-হু করে তোমার গন্ধ পেলে

এখন তোমার চিরহরিত তলপেটে
রাত্রি জুড়ে সতেজ সবুজ চাষ আমার ঘুমে ঘুমকাড়ানি কীটে
শান দিয়েছে কঞ্চি বিহীন বাঁশ

গভীর রাতে শরীর সুরার নেশা
জমিয়েছে মধু স্বামীর মৌচাকে
তবুও আমার পঙ্গু ভালবাসা-
পুঁজের ভেতর সুগার খুঁজতে থাকে

বিধবা যেদিন হবে সিঁদুর পরিচয়
সেদিন বৃদ্ধ আমিও পুড়ে শেষ
তবু তোমার সিঁথি স্বামীতেই অক্ষয়
থাকবে না জানি আমার কোনো রেশ

Love kobita bangla #banglakobita সবার অত্যন্ত প্রিয়। আপনি যদি #প্রেমেরকবিতা না ভালবাসেন তাহলে আর ভালই বা কী বাসলেন। Welcome to Love kobita bangla for every bengali poem lovers.

Free download Bengali Shayari photos

Need New Bengali Shayari photo ?

We have posted here so many wonderful and fresh bengali shayari photo with new photo gallery. So you will like these photos and you will like to share these photos with your hurt person. Here you will get also about many occasions.

We Solve here all popular Google search queries about Bengali shayari or bangla shayari

If you want shayari photo bengali ?

If you want shayari bangla photo ?

If you want shayari photo bangla ? 

Here’s solve your all queries.

So start your next day with the best bengali shayari photo.

Bengali sad shayari

what is Bengali sad shayari

Your answer is,- Bengali sad shayari is a most popular heart touching lines.

Download New Bengali shayari photo for your sweetheart

Apni jodi apnar momer manusher jonno bengali shayri photo khujchen tahole ekhane prochur bengali bhayari photo paben. Ja apni facebook WhatsApp Instragram twitter pinterest soho jekono jaygay bebohar korte parben.

 

Bengali shayari photos

Bengali shayari photos

Bengali shayari photo
Bengali sad shayari

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

We Solve here all popular Google search queries about Bengali shayari or bangla shayari

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bangla sad shayari photo and love bangla golpo

Valobasa manei kanna diye kena ajiboner jonno nikhut jontrona. Tobuo prem ase valobasa toiri hoy kintu besirvag valobasai okaron kimba samanyo karone jhore jay. Ei jhore jawatukui valobasar porinoti ba niyoti ja amader hate nei. Kintu ha amra moner manushke valo shayari upohar diye manoshik jontronar kothatuku bojhate pari ei ja ses kotha. Ei bhalobasar shayari gulo bengali shayarike amor kore rakhbe.

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

New Bengali shayari photo for girlfriend

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Top bengali shayari image download here

Valobasa ba prem holo biswas ar amra sei biswaser upor dariye beche thaki. Ei biswas jotodin banchbe amrao thik totodin banchbo. Ei bangla shayari gulo amader choto choto dukkho kotha. Hasi kannar dolay chepei jibon chole etai niyom etai niyoti. Hoy maniye nite hoy notuba mene nite hoy.

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

 

Bengali shayari photo
Bengali sad shayari

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

 

Everybody loves shayri, because everybody believe in loves. If you love truly then this shayari photo help to improve your relationship. I think sad shayari photos direct touch in fillings.

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Bengali shayari photo

Send this shayri photo to your lover

Amra ekdin moner manushke nijer kotha bolote chithir bebohar kortam. Sei chithi diye asteo ekdujon thakto. Ekhon kotosoto social media. Mobile. Aro hazarta upay. Kintu valobasa jeno kothao nijer srot hariyeche.

Bengali shayari photo
Bengali shayari

Bengali shayari photo

love kobita bangla

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo

If  you fiend this types of Bengali shayari,-

abegi bengali shayari, abhiman bengali shayari, album bengali shayari, all bengali shayari, all bengali shayari download, alone bengali shayari, annaprashan bengali shayari, apj abdul kalam bengali shayari, attitude bengali shayari, attitude bengali shayari pic bangla, bengali shayari, bangla koster shayari, bangla premer shayari, bangla shayari jalsa bangla, shayari jeevan bangla, shayari jokes bangla, shayari qawwali, bangla shayari question, bangla shayari quotes, beautiful bengali shayari, bengali break up shayari,

This article solve your all bengali shayari queries.

What is Bengali shayari ? Why people Love Bengali shayari

New bengali shayari

What is Bengali shayari ?

Bengali shayari কাকে বলে? কেন লোক Bengali shayari এত পছন্দ করেন?All time best Bengali sad shayari and sad shayari photos

এই দুই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে একটা শায়রির ছবি দেওয়া একান্ত প্রয়োজন। সেটা দেখলেই বিষয়টা অনেকটা পরিস্কার হবে।

New bengali shayari

What is Bengali shayari ?

Bengali shayari হচ্ছে ভালবাসার প্রাণ। ভালবাসায় হাসি যেমন আছে ঠিক তার চেয়েও বেশি আছে কান্না। বেশির ভাগ ভালবাসা সাফল্য পায় না বলেই Bengali sad shayari প্রাধান্য পেয়েছে love kobita-r চেয়েও বেশি।

শায়রি প্রেমকে আরও বেশি প্রাণ দেয় কিংবা হারানো প্রেমকে ফিরে আসার পথ দেখায়। শায়রি মাত্র কয়েকটা লাইনের মাধ্যমেই অতীতকে খুব সহজে মনে করাতে পারে বলেই লোকে শায়রিকে এতোটা পছন্দ করে।

যেমন ধরুন কারু ভালবাসা সত্যিই পবিত্রছিল কিন্তু সামান্য ভুল বোঝাবুঝির জন্য ব্রেকাপ হয়ে গেছে। যোগাযোগ পুরো বন্ধ সেই ক্ষেত্রে শায়রি একমাত্র অবলম্বন হয়ে দাঁড়ায়।

আবার ভাল ভাল মুহুর্তগুলোকে মনে রাখার জন্য Bengali love shayari র ব্যবহার হয়। এটাও চলে আসছে বহুকাল থেকে। যখন হাতে হাতে মোবাইল ছিল না, ফেসবুক হোয়াটসঅ্যাপ ছিল না তখন চিঠিই ছিল একমাত্র আশ্রয়। আর হাতে লেখা চিঠির ভেতরের শায়রি প্রেমিক বা প্রমিকাকে আরো বেশি ভালবাসায় ডুবিয়েদিত।

তাহলে বুঝতেই পারছেন বাংলা শায়রি হচ্ছে সামান্য কয়েক লাইনে লেখা এমন শব্দের মালা যা প্রেমকে পরিনতির দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। হারানো প্রেমকে ফিরে আসার পথ দেখায়।

আপনি যদি আপনার প্রেম হারিয়েছেন তাহলে শায়রি নামন হাতিয়ার ব্যবহার করে দেখতে পারেন, হতে পারে আবার আপনার প্রেম ফিরে এলো। শায়রির অসাধ্য কিছুই নেই। শায়রি হল ভালবাসার মন্ত্র।  

New bengali shayari

Why people Love Bengali shayari

কেন লোকে bengali shayari ভালবাসে সেটার উত্তর আগেই দিয়েছি। কিন্তু শায়রি শুধুমত্র প্রমিক প্রেমিকাকে কেন্দ্র করেই তৈরি হয় নি।

Shayari for friendship, shayari for relation (mother father brother sister) এর জন্যও প্রচুর ব্যবহার হয়। এটা আপনিও জানেন।

তাহলে বোঝাই যাচ্ছে শায়রি হচ্ছে ভালবাসার লাইন, যা প্রেমকে কেন্দ্রকরে যেকোনও সম্পর্কে ব্যবহার করা যেতে পারে।

Sad bengali shayari

ভালবাসার মানুষ থেকে পাওয়া আঘাত আমাদেরকে সবচেয়ে বেশি শায়রির দরজায় নিয়ে আসে। আসলে প্রেম ভাঙার পর শায়রির লাইনগুলো ব্লেডের মতো আমাদের হৃদয়কে কাটতে থাকে।

হয়তো আপনার বিশ্বাস হবে না কিন্তু একটা বাস্তব সত্য কথা বলি মানুষ প্রচণ্ড আবেগপ্রবণ তাই মানুষ কষ্টকেও তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করতে ভালবাসে। কষ্টকে উপভোগ করার ভেতরে যে বিরহ সুখ থাকে সেটাকে মানুষ নিঁগড়ে উপভোগ করে।

আর এই কষ্টকে চেটে খাওয়ার অভ্যাস আমাদেরকে শায়রি প্রেমিক করে তোলে আদিম কালেই। আজও আমরা তার বাইরে নই।

Why bengali shayari very important for us 

Why bengali shayari important ? 

এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন। কেন শায়রিকে আমরা এতটা প্রধান্য দিয়ে থাকি৷

আসলে আমাদের দুঃখ পাওয়া মন নিজের ভেতরের অপরিসীম যন্ত্রনাকে যখন প্রকাশের পথ পায় না তখন শায়রিকে আঁকড়ে ধরে বাঁচার চেষ্টা করে। অতীতকে ভোলার ব্যর্থ চেষ্টা করে।

আসলে ভোলা কিছুই যায় না। ভোলার চেষ্টা মানে আরও বেশি বেশি মনে করা। আগেই বলেছি আমরা সবাই কিন্তু কষ্টের কাঁগাল। কষ্ট পেতে আমরা ক্লান্ত হই না। তাই বারবার আঘাত পেয়েও আমরা প্রেমে পড়ি নতুন ভাবে আঘাত পাব বলেই।

প্রেমে অন্ধকারের মতো কষ্ট আছে বলেই প্রেমের গতি আলোর চেয়েও বেশি আমাদেকে আকর্ষণ করে। তাই আমরা আঘাত পেয়েও আবার প্রেমের পথে পা বাড়াই।

Shayari এখানে মলমের কাজ করে। আমরা মলম লাগিয়ে নতুন আবেগে আবার প্রেমের পথে পাড়ি জমাই। আমরা জানি কেউ কথা রাখেনি কেউ কথা রাখে না তবুও নতুন কাউকে খুঁজতে থাকি এ কথা রাখবেই সেই আশায়।

এখানেই bengali shayari important হয়ে দাঁড়ায় আমাদের জীবনে। আমাদের প্রেম পথকে প্রবাহিত করতে সাহায্য করে। আমাদেরকে কষ্ট গিলে গিলেও বাঁচতে শিখিয়ে দেয়।

বন্ধুরা লেখাটি ভাল লেগে থাকলে অবশ্যই শেয়ার করবেন। আমরা নতুন নতুন বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে থাকব। তাই সাবস্ক্রাইব করতে ভুলবেন না। প্রেমকে কেন্দ্র করে যাকিছু রয়েছে সবই আমাদের আলোচ্য বিষয়। আর শায়রি আমাদের প্রাণ তাই শায়রি তো থাকছেই। ভালবাসা নেবেন। ভাল থাকুম সঙ্গে থাকুন।

Related article

bangla premer kobita

bangla romantic quotes

18 bangla romantic kobita

ekusher kobita

shesher kobita

bangla picture message

bangla kobita love

valobashar kobita

prem bangla kobita

bangla kobita blog

bangla romantic sms

Download bangla Shayari

bangla sms kobita

bangla love sms

bangla love poem

valobasar kobita

bangla romantic Shayari veletine

Bangla koster kobita

bangla premer kobita collection

Very sad shayari

love kobita

bangla valobashar kobita

bangla sms

premer kobita

bangla love poem romantic

bangla love sad sms

Bangla sad shayari

Bangla very sad sms

Bengali sad shayari photo

Inline

OOPS! It seems like popup content field is empty, Please add the following shortcode to Popup Content field from Facebook > Auto Popup settings .

[efb_likebox fanpage_url="maltathemes" box_width="250" box_height="" locale="en_US" responsive="0" show_faces="1" show_stream="0" hide_cover="0" small_header="0" hide_cta="0" animate_effect="fadeIn" ]

Don't forget to replace the maltathemes with your page ID